×
অনুসন্ধান
EveryBengaliStudent.com
জীবন এবং ঈশ্বর বিষয়ক প্রশ্নগুলি
 আবিস্কার করার জন্য নিরাপদ স্থান
প্রশ্ন ও উত্তর

বাইবেলে কি অনেক অসঙ্গতি রয়েছে?

WhatsApp Share Facebook Share Twitter Share Share by Email More PDF

প্রশ্ন: "বাইবেলে কি অনেক অসঙ্গতি রয়েছে?"

আমাদের উ: যদিও অনেকেই এটা দাবি করে যে বাইবেল অসঙ্গতিতে পূর্ণ, তবে এটা একেবারেই সত্য নয়। বাইবেলের আকার এবং উদ্দেশ্যর ভিত্তিতে এতে অসঙ্গতির পরিমাণ আসলেই অনেক কম। আপাতদৃষ্টিতে এই অমিলের মধ্যে যা আছে তা হল বিপর্যয়ের চেয়ে কৌতূহল বেশি। এগুলো কোন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা বা বিশ্বাসের প্রতিবেদনের সাথে সাঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

এখানে তথাকথিত অসঙ্গতির একটি উদাহরণ দেওয়া হল। যীশু যে ক্রুশে ঝুলবেন সেখানে পিলাত একটি চিহ্ন দেয়ার আদেশ দিলেন। সুসমাচারের এই তিনটি নথিতেই সেই চিহ্নতে কী লেখা ছিল তা লেখা হয়েছে:
     মথিলিখিত সুসমাচারে: ‘‘এ যীশু, যিহূদীদের রাজা।’’
     মার্কলিখিত সুসমাচারে: ‘‘যিহূদীদের রাজা।‘’
     যোহনলিখিত সুসমাচারে: ‘‘নাসরতের যীশু, যিহূদীদের রাজা।’’

এখানে শব্দান্তর ভিন্নভাবে করা হয়েছে, যেটা আপাতদৃষ্টিতে অসঙ্গতপূর্ণ বলে মনে হচ্ছে। লক্ষণীয় বিষয় এই যে, তিনজন লেখকই একই ঘটনাকে বিশদ বিবরণ আকারে বর্ণনা করেছেন—যীশু ক্রুশারোপিত হয়েছিলেন। এতে তারা সকলেই একমত। এমনকি তারা এই প্রমাণও রেখেছেন যে ক্রুশে একটি চিহ্ন দেয়া হয়েছিল এবং তিনজনের বিবৃতিতেই এই চিহ্নটির অর্থ একই!

তাহলে হুবহু শব্দান্তরের বিষয়টি কি হবে? সুসমাচারের মূল গ্রীক নথিগুলোতে, তারা বর্তমানের মত প্রত্যক্ষ উদ্ধৃতি চিহ্ন ব্যবহার করে নি। সুসমাচার লেখকরা পরোক্ষ উদ্ধৃতি ব্যবহার করেছিলেন, যা অনুচ্ছেদগুলোর সূক্ষ্ম পার্থক্যের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এখানে অসঙ্গতির আরও একটি উদাহরণ দেওয়া হল। যীশু কি তাঁর পুনরুত্থানের আগে কবরের ভেতর দুই রাত ছিলেন নাকি তিন রাত ছিলেন? যীশু তাঁর ক্রুশারোপন সম্পর্কে বলেছেন,‘‘ যোনা যেমন সেই মাছের পেটে তিন দিন ও তিন রাত ছিলেন মনুষ্যপুত্রও তেমনি তিন দিন ও তিন রাত মাটির নীচে থাকবেন।’’ (মথি ১২:৪০) মার্ক যীশুর বলা আরও একটি বিবৃতি সংরক্ষণ করেছেন,‘‘ দেখ, আমরা যিরূশালেমে যাচ্ছি। সেখানে মনুষ্যপুত্রকে প্রধান পুরোহিতদের ও ধর্ম-শিক্ষকদের হাতে ধরিয়ে দেওয়া হবে। তাঁরা তাঁর বিচার করে তাঁকে মৃত্যুর উপযুক্ত বলে স্থির করবেন এবং অযিহূদীদের হাতে দেবেন।অযিহূদীরা তাঁকে ঠাট্টা-বিদ্রূপ করবে, তাঁর গায়ে থুথু দেবে, তাঁকে ভীষণভাবে চাবুক মারবে এবং মেরে ফেলবে। তিন দিনের দিন আবার তিনি জীবিত হয়ে উঠবেন।” (মার্ক ১০:৩৩,৩৪)

যীশুকে শুক্রবারে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছিল এবং তাঁর পুনরুত্থান হয়েছিল রবিবারে। কবরের ভেতর কীভাবে তিনি তিন দিন এবং রাত ছিলেন? যীশুর সময়কালে তিনি ইহুদি রীতি অনুযায়ী দিন গণনা করার বিষয়টি বলেছেন যেটা হল কোন দিন বা রাতের যে কোন অংশকে সম্পূর্ণ দিন বা রাত হিসেবে গণনা করা হতো। তাই যীশুর সংস্কৃতিতে শুক্রবার, শনিবার, রবিবার এগুলোই হল তিনটি দিন এবং তিনটি রাত ধরা হয়েছে। আমরা বর্তমানেও একইভাবে বলি—যদি একজন ব্যক্তি এটা বলে, ‘‘আমি সারা দিন ধরে কেনাকাটা করেছি,’’ এতে আমরা বুঝি যে সেই ব্যক্তি ২৪ ঘন্টা ধরে সেই কাজ করছে না।

নতুন নিয়মে এটি আপাতদৃষ্টিতে অসঙ্গতির সাধারণ একটি ধরণ। বেশিরভাগই কঠিন পরীক্ষার দ্বারা ঐতিহাসিক পটভূমি অধ্যয়নের মাধ্যমে সমাধান করা হয়েছে।

 আমার একটি প্রশ্ন বা মন্তব্য আছে…
 কিভাবে ঈশ্বরের সাথে একটা সম্পর্ক শুরু করেন

এই প্রবন্ধটি শেয়ার করুন
WhatsApp Share Facebook Share Twitter Share Share by Email More